৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর

৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর

৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। প্রতি সপ্তাহের ন্যায় ষষ্ঠ (৬ষ্ঠ) সপ্তাহের এসাইনমেন্ট প্রকাশিত হয়েছে মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.dshe.gov.bd

৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ – ৬ষ্ঠ সপ্তাহ। আপনি কি নবম (৯ম) শ্রেণির ৬ষ্ঠ সপ্তাহের পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ (ষষ্ঠ সপ্তাহ) সন্ধান করছেন? আপনি সঠিক জায়গায় চলে আসছেন কারণ আমরা এখানে নবম (৯ম) শ্রেণির ৬ষ্ঠ সপ্তাহের পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট বিষয় নিয়ে প্রশ্ন ও সমাধান প্রকাশ করেছি। আপনি আপনার শ্রেণির সমাধান প্রশ্নগুলিও দেখতে পারেন। আপনি যদি চান আপনার অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্নের উত্তর সহজেই দেখতে পাবেন।

৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

তারপরে একটি এসাইনমেন্ট তৈরি করা আপনার পক্ষে সুবিধাজনক হবে। নবম (৯ম) শ্রেণির ৬ষ্ঠ সপ্তাহের পদার্থ বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট এসাইনমেন্টের উত্তর আমরা প্রতিটি বিষয়ের জন্য ধাপে ধাপে এখানে আলোচনা করেছি। সুতরাং আপনি এখান থেকে আমাাদের ওয়েব সাইটে mediabazar24.com এর শিক্ষা সংবাদ ক্যাটাগরিতে আপনার শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের উত্তর সংগ্রহ করতে পারেন। নীচে আপনার উত্তর দেওয়া আছে।

আপনি যদি ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ৯ম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান স্টাডিজ নিয়োগের সন্ধান করছেন, আমরা আপনার জন্য এখানে আছি বিশেষজ্ঞের সহায়তায় আমরা শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বোত্তম পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর সরবরাহ করি। আপনার এসাইনমেন্ট সম্পূর্ণ করতে, আমাদের প্রদত্ত উত্তর আপনাকে আপনার একটি লেখার ক্ষেত্রে অনেক সহায়তা করবে। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর বিবরণ এবং ভাল মার্ক পাওয়ার জন্য সেরা।

ক্লাস ৯ম (নবম) পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সম্পর্কিত সকল তথ্য আমাদের এখানে বিস্তারিত আকারে আলোচনা করা হয়েছে। তাহলে আশা করা যায় ক্লাস নবম (৯ম) পদার্থ বিজ্ঞান এসাইনমেন্ট সম্পর্কে সকল তথ্য আপনি আমাদের এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন।

যে যেহেতু প্রত্যেক শিক্ষার্থী তাদের নির্ধারিত এসাইনমেন্ট বিদ্যালয় জমা দিয়ে পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ হবে। সুতরাং আমি বলতে পারি যে, ক্লাস ৯ম এর শিক্ষার্থীদের জন্য এই অ্যাসাইনমেন্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই অ্যাসাইনমেন্ট আপনার বিদ্যালয় জমা দিলেই আপনি পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ হতে পারবেন।

 

৯ম (নবম) শ্রেণি পদার্থ বিজ্ঞান ৬ষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

প্রথম অধ্যায়: ভৌতরাশি এবং পরিমাপ

১.১ পদার্থ বিজ্ঞান | ১.২ পদার্থ বিজ্ঞানের পরিসর | ১.৩ পদার্থ বিজ্ঞানের ক্ৰমবিকাশ | ১.৩.১ আদি পর্ব (গ্রিক, ভারতবর্ষ, চীন এবং মুসলিম সভ্যতার অবদান) | ১.৩.২ বিজ্ঞানের উত্থান পর্ব | ১.৩.৩ আধুনিক পদার্থ বিজ্ঞানের সূচনা | ১.৩.৪ সাম্প্রতিক পদার্থ বিজ্ঞান | ১.৪ পদার্থ বিজ্ঞানের উদ্দেশ্য | ১.৪.১ প্রকৃতির রহস্য উদঘাটন | ১.৪.২ প্রকৃতির নিয়মগুলাে জানা | ১.৪.৩ প্রাকৃতিক নিয়ম ব্যবহার করে প্রযুক্তির বিকাশ | ১.৫ ভৌতরাশি এবং তার পরিমাপ | ১.৫.১ পরিমাপের একক ` | ১.৫.২ উপসর্গ বা গুণিতক | ১.৫.৩ মাত্রা | ১.৫.৪ বৈজ্ঞানিক প্রতীক ও সংকেত | ১.৬ পরিমাপের যন্ত্রপাতি | ১.৬.১ ফ্কেল | ১.৬.২ ব্যালান্স (ভর মাপার যন্ত্র) | ১.৬.৩ থামা ঘড়ি | ১.৭ পরিমাপের ত্রুটি ও নির্ভুলতা

তোমার পদার্থ বিজ্ঞান বইয়ের ২৩নং পৃষ্ঠার চিত্র অনুসারে একটি স্লাইড ক্যালিপর্স আর্ট পেপারের সাহায্যে তৈরী করে এর সাহায্যে একটি মার্বেলের আয়তন (কাজের ধারাবর্ণনাসহ) নিরণয় কর। যদি তোমার পরিমাপে ১০% আপেক্ষিক ত্রুটি
থাকে তাহলে মার্বেলের আয়তন নির্ণয়ে শতাংশের হিসেবে ত্রুটি কিরূপ হবে গাণিতিক ব্যাখ্যা দাও।

উত্তর:

এখান থেকে শুরু…….

কাজের ধারা :

i ). স্লাইড ক্যালিপার্সটি নিয়ে এর প্রধান স্কেলের ক্ষুদ্রতম এক ভাগের মান এবং ভার্নিয়ার স্কেলের মোট সংখ্যা কত তা লক্ষ্য করি।

ii ). এরপর যন্ত্রটির ভার্নিয়ার ধ্রুবক (VC) বের করি।

iii ). এখন মার্বেলটির ব্যাস বরাবর স্লাইড ক্যালিপার্সের দুই চোয়ালের মধ্যে স্থাপন করে চোয়াল দুটিকে বস্তুর দুই প্রান্তের সাথে স্পর্শ করি।

iv ). এই অবস্থায় ভার্নিয়ারের শূন্য দাগ প্রধান স্কেলের যে দাগ অতিক্রম করে, সেই দাগের পাঠই হল প্রধান স্কেল পাঠ M নির্ণয় করি।

v ). এই অবস্থায় ভার্নিয়ারের কত সংখ্যক দাগ প্রধান স্কেল এর যেকোনো একটি দাগের সাথে মিলে যায় তা নির্ণয় করা হলো। এটি ভার্নিয়ার সমপাতন V।

vi ). প্রয়োজনীয় হিসাবের সাহায্যে মার্বেলের ব্যাসার্ধ, আয়তন নির্ণয় করি।

 

হিসাব :

মার্বেলের ব্যাস পরিমাপের ক্ষেত্রে,
মূল স্কেলের পাঠ, M =1.7 inch
ভার্নিয়ার সমপাতন, V = 8
ভার্নিয়ার ধ্রুবক, VC = মূল স্কেলের ক্ষুদ্রতম ১ ভাগের দৈর্ঘ্য ÷ ভার্নিয়ার স্কেলের ভাগ সংখ্যা

= 0.1 inch ÷ 10
= 0.01 inch
মার্বেলটির ব্যাস, L = M+V×VC
= 1.7+8×0.01
=1.78 inch

আবার,

1 inch =2.54 cm
1.78 inch =(2.54×1.78) cm = 4.52 cm
সুতরাং, মার্বেলটির ব্যাস = 4.52 cm
তাহলে মার্বেলটির ব্যাসার্ধ = 4.52÷2 cm
= 2.26 cm
মার্বেলটির আয়তন = 4/3π R 3
= 4/3 × 3.1416 × (2.26) 3
= 48.35 cm^3
মার্বেলটির পরিমাপ করা আয়তন = 48.35 cm 3

যেহেতু মার্বেলটির আপেক্ষিক ত্রুটি 10% কাজেই মার্বেলটির ব্যাসার্ধ পরিমাপ করা হলে সবচেয়ে কম 2.034 cm এবং সবচেয়ে বেশি 2.48 cm হতে পারে।

কাজেই আয়তন,
সবচেয়ে কম = 4/3π R 3
= 4/3 × 3.1416 × (2.034) 3
= 35.24 cm^3
এবং সবচেয়ে বেশি = 4/3π R 3
= 4/3 × 3.1416 × (2.48) 3
= 63.89 cm 3 হতে পারে।

কাজেই চূড়ান্ত ত্রুটি –
|48.35 – 35.24| = 13.11 cm 3
অথবা, |63.89 – 48.35| = 15.54 cm 3

যেহেতু দুটি সমান নয় আমরা বড়টি নিই। অর্থাৎ চূড়ান্ত ত্রুটি 15.54 cm 3
কাজেই আয়তন পরিমাপের আপেক্ষিক ত্রুটি শতাংশ = (15.54/48.35×100)%
= 32.14%

class 9 physics assignment answer 2021 6th week

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *